হরেক রকমের ঠগী! মানুষ খুন করাই যাদের পেশা
স্বপ্ন নিউজ ডেস্ক
ডিসেম্বর ১৫, ২০২০, ৫:২১ পূর্বাহ্ণ
স্বপ্ন নিউজ ডেস্ক : ঠগী-এরা মানুষ খুন করত। সাধারণত বছরের একটা নির্দিষ্ট সময়ে বের হত দল বেঁধে। তাদের একজন দেবী ছিলেন এবং ছিল কিছু কঠোর নিয়ম। ঠগীরা সেসব নিয়ম মেনে চলত। পথচারীদের সাথে প্রথমে বন্ধুত্ব করত এবং তারপর মেরে মাটির নিচে পুঁতে রাখত।

ধুতুরিয়া
– এরাও খুনী। তবে ঠগীদের মত নিয়ম মানত না। ধুতুরার বিষ মিশিয়ে মানুষ হত্যা করত বলে এদের নাম ছিল ধুতুরিয়া।
তুসমাবাজ ঠগ –এরা এক ধরনের ভ্রাম্যমান ঠগ। ক্রেয়াগ নামের এক ইংরেজ ঠগী হতে চেয়েছিল। সে কিছু শিষ্য জোগাড় করে মানুষ খুনে নামে। একসময় তার অনেক শিষ্য হয় এবং তারা ছড়িয়ে পড়ে। তারা দঁড়ি দিয়ে বাজী ধরে খেলা দেখাত। সাধারণত বাজীতে হেরে গেলে খুন করত। তাদের যাদুর তামাসাকে বলা হত তুসমবাজী।

মেকফানসা
এরা আরেক ধরণের খুনী। যারা মানুষ খুন করে ছোট বাচ্চাদের নিয়ে বিক্রি করত।

পাঙ্গু/ ভাগিনা
এরা পানির ঠগী। বিভিন্ন নৌকায় থাকত। পানিপথের যাত্রীদের খুন করে পানিতে ভাসিয়ে দিত। ঠগীদের সাথে এদের মিল ছিল। তবে রক্তপাত ছিল এদের জন্য নিষিদ্ধ। এরা খুন করে মেরুদন্ড ভেঙে দিয়ে পানিতে মৃতদেহ বিসর্জন দিত।

এই্সব খুনীদের নিয়ে বিশেষত ঠগীদের নিয়ে বই “ঠগী”। লিখেছেন শ্রীপান্থ। শ্রীপান্থ ১৯৩২ সালে ময়মনসিংহের গৌরীপুরে জন্মগ্রহণ করেন। পেশায় সাংবাদিক। ঠগীদের বিস্ময়কর জীবানাচার, ধর্মবিশ্বাস ও খুন সম্পর্কে তার এই “ঠগী” বইটি অনেক তথ্যপূর্ণ।
মে ২০১৪ তে এক গ্রুপে এই পোস্ট দিয়েছিলাম।

সূূত্র-ফেসবুক থেকে

আপনার মতামত লিখুন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন বড় বোন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।শুক্রবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন তিনি।

ঢাকা অফিস

সম্পাদক : মোঃ ইয়াসিন টিপু

নাহার প্লাজা , ঢাকা-১২১৬

+৮৮ ০১৮১৩১৯৮৮৮২ , +৮৮ ০১৬১৩১৯৮৮৮২

shwapnonews@gmail.com

পরিচালনা সম্পাদক : মিহিরমিজি

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সপ্ন নিউজ
Powered By U6HOST